জীবন সমস্যার সমাধান

মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধির উপায় একুপ্রেসার ও মুদ্রা

মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা

মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধির উপায়: প্রতিনিয়ত আমরা কোন না কোন কাজের মধ্যে ডুবে থাকি। কখনো কখনো এক নাগাড়ে এত বেশি কাজ হয়ে যায় যে শরীর আর নিতে পারে না। মাথা ব্যথা, ঘাড় ব্যথাসহ নানা ব্যথা শুরু হতে থাকে। ফলে আমরা বিভিন্ন ব্যথানাশক ঔষধের ওপর নির্ভর হয়ে পড়ি। যা পরবর্তীতে সাইড ইফেক্ট তৈরি করে।

তাই আজকে আপনাদের এমন কিছু পদ্ধতি দেখিয়ে দিব যেগুলো করলে আপনার আর ব্যথা থাকবে না। ব্রেণের ক্ষমতাও হবে দ্বিগুণ। বিজ্ঞানের ভাষায় এ পদ্ধতিগুলোকে Accupressure বলে। চলেন তবে দেখে নেয়া যাক, কি সেই পদ্ধতিগুলো।

তাই আজকে আপনাদের এমন কিছু পদ্ধতি দেখিয়ে দিব যেগুলো করলে আপনার আর ব্যথা থাকবে না। ব্রেণের ক্ষমতাও হবে দ্বিগুণ। বিজ্ঞানের ভাষায় এ পদ্ধতিগুলোকে Accupressure বলে। চলেন তবে দেখে নেয়া যাক, কি সেই পদ্ধতিগুলো।

No 1: Middle of N & L Point

একুপ্রেসার

নাক ও ঠোঁটের মাঝের পয়েন্টিকে N and L পয়েন্ট বলা হয়ে থাকে। এই পয়েন্টে দাবানোর ফলে আপনার অলসতা চলে যাবে এবং কাজের প্রতি একাগ্রতা বাড়বে। থার্ড আই পয়েন্ট এর মতই ৩ মিনিট এই পয়েন্টে প্রেস করতে হবে।

NO 2: 3rd eye point

brain power bangla

আপনার শরীরের এমন কিছু পয়েন্ট আছে যেগুলো আপনার ব্রেনের সাথে সম্পর্কিত। সবচেয়ে ইফেক্টিভ পয়েন্টটি হল আপনার দুই ভ্রুর মাঝখানে। যেখানে মেয়েরা টিপ পরে থাকে। এটাকে আমরা 3rd eye পয়েন্ট বলতে পারি। এই পয়েন্টে আপনাকে ২ থেকে ৩ মিনিট প্রেস করতে হবে। মানে এই জায়গাটিতে প্রেস করতে হবে এবং ছাড়তে হবে।

প্রেস করবেন, ছাড়বেন, প্রেস করবেন, ছাড়বেন। এভাবে প্রতি সেকেণ্ডে একবার করে ১ মিনিটে ৬০ বার প্রেস করবেন। তাহলে ৩ মিনিটে ১৮০ বার। সকালে উঠে যদি ৩ মিনিট সময় নিয়ে এই ট্রিকসটি এপ্লাই করেন তাহলে আপনার ব্রেন Uplift হবে। অর্থাৎ ব্রেনের প্রতিটি অর্গান এলার্ট ও মজবুত হবে। একদিন না করলে আসলে এই ম্যাজিকীয় ফলাফলটা বুঝতে পারবেন না।

No 3: Sun Point

স্মৃতিশক্তি বাড়িয়ে নিন

চিপের সামনে ও ভ্রুর শেষ প্রান্তের পয়েন্টকে Sun Point বলে। এই পয়েন্টে যখন ম্যাসেজ করবেন তখন ভিতর থেকে একটা আলাদা শক্তি অনুভূত হবে। মাথা ব্যথা হলে ৩ মিনিট এই ম্যাসাজ করুন। তারপর ম্যাজিকীয় ফলাফলটা নিজেই পেয়ে যাবেন।

ব্রেনের মধ্যে সঠিকভাবে রক্ত চলাচল না হলে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মাথা ব্যথা করে। এজন্য এই পদ্ধতিটি অনুসরণ করলে সেখানকার নার্ভগুলো দ্রুত রক্ত চলাচল বাড়িয়ে দেয়। ফলে ব্রেন পর্যাপ্ত রক্ত পায়।

No 4: Below thumb point

ব্রেনের ব্যায়াম

এই পয়েন্টটি আপনার হাতের তালুর এ জায়গাটিতে পাবেন। প্রতিদিন ৩ মিনিট এ পয়েন্টে দাবালে কখনোই আপনার লিভার, স্পাইনাস বার্ড, চেষ্ট ও পেটের কোন সমস্যা হবে না। ইনস্ট্যান্ট মাথা ব্যথা দুর করার জন্য চায়নার প্রতিটি স্কুলে শিক্ষকরা ছাত্রদের এই পদ্ধতি করতে বলেন।

No 5: Mudras

Mudras

মুদ্রা আমাদের শরীরের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি কৌশল যেটার মাধ্যমে পুরো শরীর হিডেন ম্যাসাজ হয়। শুনতে অবাক হলেও এটি সত্য। এটা করা খুব সহজ। ঋষিদের মত ধ্যানে বসে দুই হাতের বৃদ্ধ আঙুলের সাথে তর্জনী আঙুল চেপে ধরে আরাম করে বসতে হয়। তারপর চোখ বন্ধ করে জোড়ে জোড়ে নিঃশ্বাস নিতে হয়।

মাত্র ৫ মিনিট এটি করে ব্রেনের ক্ষমতা ৩ থেকে ৪ গুণ বাড়ানো সম্ভব। এই মুদ্রার মাধ্যমে আপনি শান্ত হয়ে পড়বেন এবং নিঃশ্বাসের প্রতি ফোকাস করায় শরীরের রক্ত চলাচল ও হরমোন ক্ষরণ হবেই। সাথে ফ্রেশ অনুভব করবেন। মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে।

যদি আপনার কোন বিষয়ে ভয় অনুভব হয় কিংবা বরিং লাগে তখন আপনি বায়ু মুদ্রা করতে পারেন। খুব সহজ এটি। বৃদ্ধাঙ্গুলি দিয়ে তর্জনী আঙ্গুলকে চেপে ৩ মিনিট থাকতে হবে। এতে আপনার স্ট্রেচ হরমোন কমে যাবে এবং কিছুক্ষণের মধ্যে স্বাভাবিক হয়ে যাবেন।

তো বন্ধুরা ভিডিওটি শুধু দেখলেই হবে না। নিজেদের শরীর চাঙ্গা করার জন্য এ পদ্ধতিগুলো প্রাকটিক্যালি করতে হবে এবং অন্য বন্ধুরাও যেন এর মজা পায় এজন্য শেয়ার করুন।

আরও পড়ুন- পড়া মনে রাখা ও মুখস্ত করার অসাধারণ কিছু কৌশল

আপনার মতামত দিন

error: Content is protected !!